1. admin@newsbayanno24.com : admin :
  2. mdrockykhan1996@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
লৌহজংয়ে আ’লীগের শোকাবহ আগস্ট মাসব্যাপী কর্মসূচি সূচনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী লৌহজংয়ে থানার নতুন ভবন ও ফায়ার সার্ভিসের নতুন স্টেশন উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী না.গঞ্জে আড়াইশ বিএনপি নেতাকর্মীর হাজিরা লৌহজংয়ে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ যাত্রী শূন্যতায় জীবিকা নির্বাহ অনিশ্চয়তায় ভুগছেন শিমুলিয়া ঘাটের ৫ হাজার বাস স্টাফ লৌহজংয়ে গাংচিল পরিবহন রাস্তা দখল করে বাস পার্কিং পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধের পর কমেছে টোল আদায়ের হার প্রস্তাবিত বাজেট দেশীয় লিফট উৎপাদন শিল্প বিকাশের পথ সুগম করবে’ শুদ্ধাচার পুরষ্কারে ভূষিত হলেন বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি পদ্মা সেতু উত্তর থানার এএসআই’র বিরুদ্ধে দর্শনার্থীদের সাথে খারাপ আচরণের অভিযোগ

যাত্রী শূন্যতায় জীবিকা নির্বাহ অনিশ্চয়তায় ভুগছেন শিমুলিয়া ঘাটের ৫ হাজার বাস স্টাফ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২
  • ১৭ বার পঠিত
পদ্মা সেতু উদ্বোধন হওয়ার আগে সবচাইতে ব্যস্ততম ঘাট ছিলো শিমুলিয়া ঘাট। শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ি নৌ-রুট দিয়ে দক্ষিণ বঙ্গের ২১ জেলার মানুষ যাতায়াত করতেন। যার দরূন হাজার হাজার যাত্রীর পদচারণা ছিলো। শিমুলিয়া ঘাটের যে কয়টি বাস কোম্পানি রয়েছে তার কোনোটিই বসে থাকতো হয়নি। গড়ে একেকটি বাস দিনে ঢাকা-শিমুলিয়া রুটে ৫/৬ সিঙ্গেল ট্রিপ দিতেন। পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় দক্ষিণ বঙ্গের কোনো যাত্রীকেই শিমুলিয়া ঘাটে আসতে হয়না। তারা সরাসরি তাদের গন্তব্য বাসের মাধ্যমে পদ্মা সেতু দিয়ে যাতায়াত করছেন। যাত্রী শূন্যতায় বাস বন্ধ রয়েছে। বাস বন্ধ থাকায় আয়ের পথ বন্ধ রয়েছে। যার দরুন বাস স্টাফেরা জীবিকা নির্বাহ নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগছেন।
শিমুলিয়া নৌ-বন্দরে বাস টার্মিনালে ১৫ টি কোম্পানির প্রায় ৫০০ টি বাস রয়েছে। একেকটি কোম্পানিতে ৩০০থেকে ৩৫০ জন স্টাফ কাজ করে। ঢাকা-মাওয়া রুটের বাস কোম্পানি গুলো হলো বসুমতি, স্বাধীন এক্সপ্রেস, প্রচেষ্টা, ইলিশ, ডিএম, গ্রেট বিক্রমপুর, তিশা গোধুলী, আপন, এফআর, বিআরটিসি, শরীয়তপুর পরিবহন, শরীয়তপুর পদ্মা ট্রাভেলস, ও গুনগুন। এই বাস গুলো মাওয়া হতে ঢাকার গুলিস্তান,গাবতলি, মিরপুর, উত্তরা,আব্দুলাহপুর ও মাওয়া হতে যাত্রাবাড়ী, কমলাপুর পর্যন্ত যাত্রী সেবা দিতো।
যাত্রী শূন্যতায় বাস চলছেনা। আর বাস না চললে আয় হবেনা। আয় না হলে খাবার জুটবেনা। মানবতার খাতিরে অনেক স্টাফ কাজ না থাকা স্বত্তেও বাস কোম্পানির সাথে আছেন। কারন এতোদিন তাদের দ্বারা রুজি রোজগারের ব্যবস্থা হয়েছে। তাদের ভাষ্য হচ্ছে সু-সময়ে ছিলাম এখন দুঃসময়েও তাদের সাথে থাকবো। আশাকরি আমাদের বাসের সুদিন ফিরে আসবে। সরকারের কাছে আকুল আবেদন জানাই আমাদের পদ্মা সেতু পার হওয়ার পারমিট যেনো দেন।
বসুমতি পরিবহন লিমিটেডের সুপারভাইজার মো.রানা শেখ জানান, বসুমতির বাস ৪৫ টি তাদের স্টাফ সংখ্যা ২১৫ জন ও ৫০ জনের মত স্পেয়ার। আমাদের অবস্থা খারাপ,গাড়ী অচল, দৈনিক ৯ টা গাড়ী চলছে তাও যাত্রী শূন্য। আগে ৪৫ টি গাড়ী চলতো একেকটি ৫/৬ টি সিঙ্গেল ট্রিপ দিতে পারতো। এখন সর্বসাকুল্যে ৯ টি সিঙ্গেল ট্রিপ দিতে পারছি তাও আবার আসন সংখ্যার চাইতে কম। তিনি আরও বলেন এমতাবস্থায় আমি ও আমার মতো যারা বাসের স্টাফ হিসেবে আছে সবার রুজিরোজগার নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগতেছি। আমি একজন বাসের সুপারভাইজার হিসেবে সরকারের কাছে আবেদন জানাই আমাদের পদ্মা সেতু দিয়ে যাতায়াত করার সুযোগ করে দিলে আমরা আমাদের রুজি রোজগার করে খেতে পারবো।
স্বাধীন এক্সপ্রেস এর ড্রাইভার মো. মজিবর বলেন দেড় বছর ধরে গাড়ী চালাচ্ছি, পদ্মা সেতু চালু হওয়ার আগে ৪ বার ট্রিপ দিতে পারতাম। এখন সেতু চালু হওয়ায় একটি ট্রিপ দিতেই কষ্ট হচ্ছে। যাত্রীরা সব সরাসরি সেতু হয়ে পার হওয়াতে ঘাটে ওপারের যাত্রী নেই বললেই চলে। মাঝির কান্দি ঘাট হতে লঞ্চ ও স্পিডবোট করে কিছু যাত্রী পার হচ্ছে। এই যতসামান্য যাত্রী নিয়েই সারাদিন কোনো রকম ট্রিপ দিচ্ছি আমরা ও বিভিন্ন বাস কোম্পানি।
বসুমতি পদ্মা সেতু পারাপার করবে খুব শীঘ্রই। বরিশাল ও খুলনা।
মাওয়া বাস ও পরিবহন মালিক সমিতির সহ সভাপতি মো. মুরাদ খান জানান,ঘাটে বিভিন্ন কোম্পানির প্রায় ৪৫০ টি বাস রয়েছে। যাত্রী শূন্যতায় তা বেকার পরে আছে। যা যাত্রী হয় তা নিয়েই গাড়ী ছাড়তে হচ্ছে। তবে শীঘ্রই আমরা ঢাকা হতে শরীয়তপুর, ভাঙ্গা, বরিশাল, কুয়াকাটা ও খুলনা রুটে বাস চালু করতে যাচ্ছি। রুট পারমিটের জন্য আবেদন করেছি। তবে রুট পারমিটের বড় প্রতিবন্ধকতা পদ্মার ওপাড়ের বাসগুলো। তারা আমাদের মাওয়া প্রান্তের বাস দেখলে ড্রাইভারদের উপর আক্রমণ, গাড়ীর কাগজ রেখে দেওয়া, যাত্রী না নিতে দেওয়া ও বিভিন্ন হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। এমতাবস্থায় আমাদের মাওয়া প্রান্তের বাস কোম্পানি গুলো হতাশায় রয়েছে। তবে আমি মনে করি শীঘ্রই এ সমস্যা সমাধান হবে। ওপারের বাস মালিকদের সাথে আলোচনা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ নিউজ বায়ান্ন ২৪
Theme Customized BY LatestNews