1. admin@newsbayanno24.com : admin :
  2. mdrockykhan1996@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ১০:২৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জেলা অনলাইন প্রেসক্লাবের নির্বাচিত নতুন কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান ডিইউজে’র নতুন সভাপতি সোহেল হায়দার ও সা.সম্পাদক আকতার হোসেন টঙ্গীবাড়ী বালিগাঁও বাজারে ৩৬ টি দোকান পুড়ে ছাই কোটি টাকার ক্ষতি পবিত্র মাহে রমজানের প্রস্তুতি ও করনীয় লৌহজংয়ে নাশকতার প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার ২ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠান বর্জন মুক্তিযোদ্ধাদের একাংশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে লৌহজং উপজেলা প্রশাসনের নানা আয়োজন স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে লৌহজংয়ে বিএনপির আলোচনা সভা ও দোয়া আওয়ামী নেতা ও এক কলেজ শিক্ষার্থী দূর্বৃত্তের গুলিতে নিহত বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মাঝে চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই

শিমুলিয়া ঘাটে যানবাহনের চাপ,যাত্রীদের দুর্ভোগ চরমে

নিউজ বায়ান্ন ২৪
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২১২ বার পঠিত

পিংকি রহমান,লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ)-দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার অন্যতম প্রবেশদ্বার হিসেবে পরিচিত শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া মাঝিরকান্দি নৌ-পথ দুটিতে সীমিত ফেরি চলাচলে যাত্রীদের দুর্ভোগ কাটছেই না। চলতি বছরের জুলাই ও আগস্ট মাসে চারবার পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা লাগার পর থেকে এ নৌরুটে চলাচলকারী মানুষের ভোগান্তির যেন শেষ নেই। টানা ৪৭ দিন বন্ধ থাকার পর গত ৪ অক্টোবর ছোট যানবাহন নিয়ে ৪টি ফেরি শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌ-রুটে চলাচল শুরু করে। এক সপ্তাহ চলার পরই আবার বন্ধ হয়ে যায় ফেরি চলাচল। কয়েকবার পরীক্ষামূলক চালানোর পর দুই সপ্তাহ পর আবার ফেরি চলাচল শুরু হয়।এদিকে, শিমুলিয়া-মাঝিরকান্দি নতুন নৌ-রুটে অন্তত তিনবার পরীক্ষামূলক ফেরি চলার পর এখন দিনে মিডিয়াম ফেরি চলাচল করছে। পণ্যবাহী ট্রাক কিংবা পিকআপ এ নৌ-রুটে চলতে না পারায় ব্যবসায়ীদের ভীষণ ক্ষতি হচ্ছে। আরিচা ঘাট হয়ে পারাপার হওয়ায় একদিকে ১৫০/২০০ কিলোমিটার দূরত্ব বেশি পাড়ি দিতে হচ্ছে। আর অন্যদিকে পরিবহন ব্যয় বেশি গুনতে হচ্ছে প্রায় ২৫ শতাংশ।লৌহজং উপজেলার ঘোড়দৌড় বাজারের গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসায়ী রুহুল আমিন দীপু বলেন, আমরা বাগেরহাট থেকে গ্যাস আনি। সব সময় বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌ-রুটে গ্যাস আনিয়েছি। এখন ছোট পরিবহন নিয়ে সীমিত আকারে ফেরি চলাচল করায় আমার মতো ব্যবসায়ীদের লোকসান গুনতে হচ্ছে। তিনি ক্ষোভের সাথে বলেন, পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে কতৃর্পক্ষ বড়ো ফেরি চলাচল বন্ধ রেখেছে। অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে শীতকালে নদী শান্ত থাকে। আমি পদ্মা পাড়ের মানুষ। আমি জানি কখন স্রোতের বেগ বেশি থাকে। এই সময়েও স্রোতের গতির দোহাই দিয়ে বড় ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা অজুহাত ও অদক্ষতা ছাড়া কিছুই না।এ বিষয়ে বিআইডব্লিটিসি শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. শাফায়াত হোসেন জানান, সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ৪টি মিডিয়াম ফেরি দিয়ে সীমিত সংখ্যক ছোট যানবাহন নিয়ে ফেরি চলাচল করছে। মঙ্গলবার দুপুরেও ঘাটে প্রায় দেড় শতাধিক ছোট গাড়ি অপেক্ষমান রয়েছে। বিকাল পর্যন্ত যদি ঘাটে অপেক্ষমান যানবাহনগুলো পারাপার না হয়। তাহলে মাঝির ঘাট দিয়ে একটি ফেরি চলাচল করবে রাতে। এতে হয় তো দক্ষিণবঙ্গের যাত্রীদের দুভোর্গ একটু কমবে। সে সাথে বৃহস্পতিবার ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ঘাটে যানবাহনের চাপটা বেড়েছে। এ দুভোর্গের পরিত্রাণ কবে নাগাত শেষ হবে সে বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বলতে পারবে বলে ঘাট কর্তৃপক্ষ জানান।#

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ নিউজ বায়ান্ন ২৪
Theme Customized BY LatestNews